সচেতন হই , টিকাগ্রহণ করে সুস্থ থাকি

ছবিতে যে দুইটি এক্সরে দেখা যাচ্ছে তার মধ্যে প্রথম চিত্রটি একজন ৪৭ বছর বয়সী ব্যক্তির যিনি এক ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছিলেন এবং ২ সপ্তাহ পরে COVID-19 এ আক্রান্ত হন। তাঁর ওজন বেশি ছিল (BMI = 29) তবে ডায়বেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ কোন ধরনের কোমর্বিডিটি ছাড়াই। তার সর্দি, শরীরে ব্যথা, হালকা কাশি ছিল। তার বুকের এক্স রে তুলনামূলকভাবে স্বাভাবিক। অর্থাৎ সংক্রমন ততটা তীব্র ছিল না।
নিচের দ্বিতীয় চিত্রটি 50 বছর বয়সী একজন রোগাক্রান্ত মহিলা রোগীর (স্থূলতা বিহীন)। তার বুকের এক্সরে তে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন জায়গায় সাদাটে ছাপ রয়েছে, যা ফুসফুসে পানি জমা ও ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার লক্ষন যেটি COVID-19 এর সবচেয়ে মারাত্বক জটিলতা acute respiratory distress syndrome (ARDS) এর মতো দেখায়। যার চিকিৎসা হিসেবে তার intubation,mechanical ventilation,extra corporal membrane oxygen এর প্রয়োজন পড়ে।

কোভিড আক্রান্ত দুইজন ব্যক্তির এক্সরে পর্যবেক্ষণ ; উপরেরটি ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছিল ও নিচের গ্রহণ করেননি

সম্প্রতি আমেরিকার সংক্রামক রোগের চিকিৎসক ডাঃ জেসি ও’শিয়া এই এক্স-রে পোস্ট করেছিলেন যাতে তাঁর দু’জন রোগীর মধ্যে পার্থক্য দেখা যায়;এর মধ্যে একজন কোভিড ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছিলেন এবং আরেকজন ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন নি । 

পুরো বিশ্ব যখন করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে বিপর্যস্ত তখন মানবসভ্যতার সুস্থতায় করোনা প্রতিরোধকারী ভ্যাকসিন গুলোই যেনো আশীর্বাদ হয়ে দাড়িয়েছে। তার প্রমাণ উপরের   ছবিটি। ভ্যাকসিনগুলি মারাত্মক রোগ এবং মৃত্যু প্রতিরোধে কার্যকর। কিছু ভ্যাক্সিন এমনকি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ক্ষেত্রেও কাজ করতে যথেষ্ট। আমেরিকার টিকাগ্রহণ না করা COVID-19 রোগীর সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। যা পুরো বিশ্বের জন্য একটি অশনি সংকেত ইঙ্গিত দিচ্ছে । তাই আমাদের টিকা গ্রহণে সচেষ্ট হওয়া উচিত। টিকাসম্পর্কিত কোনো ধরনের বিরূপ মন্তব্যে গা ভাসিয়ে না দিয়ে সঠিক তথ্য জানুন । কোভিড -১৯ এর সকল ভ্যাক্সিন ই মৃত্যু প্রতিরোধে যথেষ্ট কার্যকর,অতএব কোনরকম বাছাবাছি না করে আপনার নিকটস্থ টিকাকেন্দ্রে যে টিকাটি পাওয়া যাচ্ছে, সেটিই গ্রহন করুন। সচেতন হন , টিকা গ্রহণ করে নিজে সুস্থ থাকুন ।

আমাদের সবসময় এটাই মনে রাখতে হবে যে আমরা যেই ভ্যাকসিন টা নিচ্ছি না কেনো সেটাই আমাদের জন্য ভালো । আমরা সকলে যত তাড়াতাড়ি ভ্যাকসিন গ্রহণ করবো তত দ্রুতই আমরা আমাদের করোনা বিহীন সুস্থ পৃথিবীটাকে ফিরে পাবো ।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • এ মুহুর্তে যথেষ্ট পরিমাণ রক্ত মজুদ আছে
  • সন্ধানী চমেক ইউনিটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের যাত্রা শুরু
  • নতুন বছরের প্রথম দিন থেকে নতুনভাবে নিয়মিত ভ্যাক্সিনেশন কার্যক্রম শুরু
  • সকল শুভানুধ্যায়ীকে ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা "ঈদ মোবারক"
toggle