২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস।।

” আবার ফুটেছে দ্যাখো কৃষ্ণচূড়া থরে থরে শহরের পথে
কেমন নিবিড় হয়ে। কখনো মিছিলে কখনো-বা
একা হেঁটে যেতে যেতে মনে হয়-ফুল নয়, ওরা
শহীদের ঝলকিত রক্তের বুদ্বুদ, স্মৃতিগন্ধে ভরপুর।
একুশের কৃষ্ণচূড়া আমাদের চেতনারই রং।”

  • শামসুর রাহমান

একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশসহ সকল বাংলা ভাষাভাষীদের কাছে গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন। বাংলার স্বাধীনতার ইতিহাসে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন একটি স্মৃতিবিজড়িত অধ্যায়। ১৯৫২ সালের এই দিনে (৮ ফাল্গুন, ১৩৫৮ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার) বাংলাকে পূর্ব পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশের নির্মম গুলিবর্ষণে বাংলার বীর সন্তানদের রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল পিচঢালা কালাে রাজপথ। সেই বীর সন্তানদের তালিকায় রয়েছে রফিক, জব্বার, সালাম, বরকতসহ নাম না জানা আরো অনেকেই। তাই বীর ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে প্রতি বছর এ দিনটিকে শহিদ দিবস হিসেবে পালন করা হয়। ১৯৯৯ সালে ইউনেস্কো এবং ৫ই আগষ্ট, ২০১০ খ্রিষ্টাব্দে জাতিসংঘ এই দিনকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস এর স্বীকৃতি দেয় এবং ২০০০ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী এই দিনটিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে।

আজ মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে সন্ধানী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ইউনিটের পক্ষ হতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এর শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে গভীর শ্রদ্ধা জানানো হয় সেসকল বীর ভাষা শহিদদের প্রতি যাদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত আমাদের এই প্রাণপ্রিয় মাতৃভাষা। বায়ান্নোর অমর একুশের সংগ্রামী আলোয় উদ্দীপ্ত হোক বাঙালির আগামীর মুক্তির চেতনা।

Summary :

Today, on the occasion of Martyrs’ Day and International Mother Language Day, a wreath has been placed at the Shaheed Minar of Chattogram Medical College on behalf of Sandhani Chattogram Medical College Unit and remembered by those our brave language martyrs whose blood had been earned our beloved mother tongue .

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • সন্ধানী চমেক ইউনিটের উদ্যোগে চালু হয়েছে জরায়ুমুখ ক্যান্সার (Cervical cancer) প্রতিরোধক টিকা প্যাপিলোভ্যাক্স ভ্যাকসিন ও ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রতিরোধক Influvax tetra
toggle